শনিবার, ২৫ জুন ২০২২ , ১১ আষাঢ় ১৪২৯

Ads

প্রকাশ :০২ মার্চ ২০২১ , ০১:৫৭ AM

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা এসি ও ফ্যান চালানোর আগে যা করবেন

single image

শীত শেষে ধীরে ধীরে এগিয়ে আসছে গরম। ফলগুনের মাঝামাঝিতেই রোদে তেজ অসহনীয় পর্যায়ে চলে এসছে। আর গরম মানেই এসি কিংবা ফ্যান আপনার সঙ্গী হবে সর্বক্ষণের। এছাড়া এই গরম থেকে রক্ষা পাওয়ার আর কোনো উপায় নেই।

তবে, গরমের শুরতে এসি-ফ্যান চালু করা আগে অবশ্যই কিছু বিষয় মাথায় রাখা জরুরি। কারণ দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা এসি বা ফ্যান চালানোর আগে বিষয়গুলো জানা না থাকলে ঘটতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা। জানা থাকা ভালো, দীর্ঘসময় এসি বন্ধ থাকার পর, তা চালাতে গিয়ে অতীতে অনেক বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এসি দুর্ঘটনার বড় একটি কারণ হলো রক্ষণা-বেক্ষণের অভাব।

শীতের পুরোটা সময় ধরেই এসি বন্ধ থাকে। তাই গরমের শুরুতেই এসি চালানোর আগে বাড়তি যত্ন নেয়া উচিত। কীভাবে এসি-ফ্যানের যত্ন নেবেন তার কয়েকটি টিপস দেয়া হলো:-

# ফ্যান চালু করার আগে, অবশ্যই সেটি ভালো করে পরিষ্কার করে নেবেন। যাতে ফ্যানের উপরে কোনো ময়লা না থাকে। ডিটারজেন্টযুক্ত পানিতে কাপড় ভিজিয়ে মুছে নিতে পারেন।

# পারলে একজন মেরামতকারীকে ডেকে সিলিং ফ্যানের বৈদ্যুতিক সংযোগ পরীক্ষা করে নিতে পারেন।

# টেবিল ফ্যান চালানোর আগেও তা ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। এক্ষেত্রে চিকন ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করতে পারেন।

# গরমের শুরুতে এসি চালানোর আগে অবশ্যই এসির মেরামত করতে হবে। পেশাদারদের মাধ্যমে চেকআপ ও সার্ভিসিং করিয়ে নিন।

# এসির এয়ার ফিল্টারে কোনো ময়লা আছে কি-না কিংবা বৈদ্যুতিক সংযোগ, সকেট, ফিল্টার ঠিক আছে কি-না সেসব বিষয়ে নিশ্চিত হতে হবে।

# দীর্ঘসময় পর বন্ধ এসি চালু করতে গেলে এসি থেকে শব্দ হতে পারে। এমনকি পানিও পড়তে পারে।

# এসি অনেক দিন বন্ধ থাকলে এর কুলিং বা ঠাণ্ডা করার ক্ষমতা কমে যায়। এক্ষেত্রে এসির ভেতরের নেট খুলে ডাস্ট ক্লিনিং করে নিতে হবে।

# কুলিং যদি একেবারে বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে বুঝতে হবে এসির ভেতরে গ্যাস ফুরিয়ে গেছে। পরবর্তীতে গ্যাস রিফিল করে নিতে পারেন।

# মনে রাখবেন, ফ্যান ও এসি একসঙ্গে না চালানোই ভালো।

এই বিভাগের আরো খবর ::

নামাজের সময়সূচী

তারিখ ২৫ জুন ২০২২

  • ফজর

    ৫:১৭

  • যোহর

    ১২:১৩

  • আছর

    ৪:৪৫

  • মাগরিব

    ৫:৫২

  • এশা

    ৭:০৪

  • সূর্যোদয় : ৬:৩৪
  • সূর্যাস্ত : ৫:৫২
Image

অনলাইন জরিপ

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ‘লকডাউন’ নিয়ে আপনি কি মনে করছেন?